ওষুধ হিসাবে নয়, ভিটামিন ই ক্যাপসুলকে এ ভাবে ব্যবহার করেছেন?

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক,
প্রকাশিত: ০৮:৪৫ পিএম, ১৫ নভেম্বর ২০১৮ | আপডেট: ০৮:৫০ পিএম, ১৫ নভেম্বর ২০১৮

---

নানা রোগ প্রতিরোধ করতে ও শরীরের নানা প্রয়োজনে ভিটামিন ই অত্যন্ত দরকারি। অনেক সময়ই চিকিৎসকরা ভিটামিন ই সমৃদ্ধ ক্যাপসুল খাওয়ার পরামর্শ দেন। কিন্তু কেবল ওষুধ হিসাবেই ব্যবহার করেনএটি?ত্বক বিশেষজ্ঞদের মতে কিন্তু এই ক্যাপসুলের ব্যবহার নানা ভাবে হতে পারে। কেবল ওষুধ হিসাবে না খেলেও এর বেশ কিছু উপকারিতা আছে। বরং ওষুধ হিসাবে না খেয়ে শরীরের নানা প্রয়োজনে বিভিন্ন উপায়ে এর ব্যবহার সমাধানের পথকে আরও প্রশস্ত করে। এ সব জানলে ত্বক ও চুল পরিচর্যায় নারী-পুরুষ নির্বিশেষে এ জিনিসকে কাজে লাগাতে পারেন সহজেই। এমনিতেই নানা ঘরোয়া উপাদান ও পার্লারের বিভিন্ন রাসায়নিকের মাধ্যমে চুল ও ত্বকের যত্ন তো নিয়েই থাকেন অনেকে।কিন্তু এই ভিটামিন ই ক্যাপসুলের মাধ্যমে কখনও পরিচর্যা করলে উপকার আরও বেশি বলেই দাবি ত্বক বিশেষজ্ঞ সঞ্জয় ঘোষের। কী ভাবে এই ক্যাপসুল ব্যবহার করলে লাভবান হবেন, জানেন?
যে কোনও ত্বকের রোগে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। কিন্তু তার সঙ্গে ভিটামিন ই-এর এমন ব্যবহার জানলে তা-ও প্রয়োগ করুন। এতেসমস্যা দ্রুত মেটে।অলিভ অয়েলের সঙ্গে ভিটামিন ই ক্যাপসুলের ভিতরের উপাদান মিশিয়ে কুড়ি মিনিট ম্যাসেজ করুন। সারা রাত রেখে সকালে ধুয়ে ফেলুন মাথা। জলপাই তেল না থাকলে সাধারণ নারকেল তেলের সঙ্গেও এটি মেশাতে পারেন।
মুখে কোনও সাধারণ কালো দাগ বা বলিরেখা থাকলে সেখানে ভিটামিন ই ক্যাপসুলের ভিতরের তরল লাগিয়ে কিছু ক্ষণ রাখুন। তার পর গরম জলে তা ধুয়ে দিন। এটি নিয়মিত করলে মুখের দাগছোপ দূর হবে সহজে।

শীত কালে হাত-পা খুব শুষ্ক হয়ে যায়। তেমন হলে মধু ও লেবুর সঙ্গে ভিটামিন ই মিশিয়ে ত্বকে লাগান। ঘরোয়া অন্যান্য উপাদানের চেয়ে এটি বেশি কার্যকর।
সহজে নখ ভেঙে যাওয়ার প্রবণতা থাকলে গরম জলে ভিটামিন ই-র তরল মিশিয়ে তাতে নখ ভিজিয়ে রাখুন। নখকে শক্ত করতে ভিটামিন ই অত্যন্ত উপযোগী।
ঠোঁট ফাটলেও ভিটামিন ই কাজে লাগাতে পারেন। মধুর সঙ্গে এর তরল মিশিয়ে লাগালে তা ঠোঁট ফাটা রোধ করতে বিশেষ সাহায্য করে।

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)